1. abir.sayeed@gmail.com : abir :
  2. xerosmac@gmail.com : Mohin Soy : Mohin Soy
  3. zakariashipon1993@gmail.com : Narayanganj Tribune : Narayanganj Tribune
  4. sifat.sikder13@gmail.com : Sifat Sikder : Sifat Sikder
July 26, 2021, 7:54 pm

চাঁদা না পেয়ে বৃদ্ধের দোকানে ভাংচুর আলাউদ্দিন বাহিনীর

Reporter Name
  • Update Time : Tuesday, October 13, 2020
নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার কুতুবপুরের ইউপি সদস্য আলাউদ্দিন হাওলাদারের বিরুদ্ধে আবারও এসেছে গুরুতর অভিযোগ৷ ফজলুল হক নামের এক বৃদ্ধের কাছে চাঁদা না পেয়ে সন্ত্রাসী বাহিনী দ্বারা তার দোকানে ভাংচুর করিয়েছেন তিনি। গতকাল সোমবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে ফজলুল হককে হুমকি দেওয়ার পর দিবাগত রাতেই এই কাণ্ড ঘটান আলাউদ্দিন৷
জানা যায়, কুতুবপুরের দৌলতপুরে ফজলুল হকের তিন কাঠা পরিমাণ জায়গা রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরেই ওই জায়গা ক্ষমতার দাপটে দখল করতে চাচ্ছেন আলাউদ্দিন৷ জায়গা না দিলে দশ লক্ষ টাকা চাঁদা দিতে হবে, এমন কথাও ফজলুল হককে সাফ জানিয়ে দেন আলাউদ্দিন৷ এর সূত্র ধরে গতবছরে মার্চে ফজলুল হককে মারধর করেন তিনি৷ সেসময় তার দাঁড়িও নিজ হাতে ছিড়ে ফেলেন আলাউদ্দিন।

ওই ঘটনায় থানায় মামলা হলেও জামিন পান আলাউদ্দিন৷ এরপর বাড়ে অত্যাচারের মাত্রা৷ চাঁদার দাবিতে ক্রমাগত ফজলুল হকের উপর চাপ প্রয়োগ করতে থাকেন তিনি৷ তারই ধারাবাহিকতায় গতকাল সোমবার (১২ অক্টোবর) প্রকাশ্যে ফজলুল হককে হুমকি দেন আলাউদ্দিন।

মধ্যরাতে শরীফবাগে থাকা ওই বৃদ্ধের দোকানের শাটার গুড়িয়ে দেয় ও দোকানে ভাংচুর চালায় আলাউদ্দিন বাহিনী৷ ফজলুল হক বলেন, “আমি নরম প্রকৃতির মানুষ বিধায় আলাউদ্দিন আমার তিন কাঠা পরিমাণ জমি লিখে নিতে চান৷ অথচ জমির সব কাগজপত্রে মালিকানা আমার। গতবছর আমি তার নামে মামলা করলেও প্রভাব খাটিয়ে সে জামিন পায়৷ আমার আইনজীবির শক্ত অবস্থানে মামলাটি বর্তমানে সিআইডিতে তদন্তাধীন৷ কিন্তু জামিন পেয়েই আলাউদ্দিনের অত্যাচারের মাত্রা বেড়ে যায়।”

ফজলুল হক আরো বলেন, “গতকাল (১২ অক্টোবর) আলাউদ্দিন আমাকে হুমকি দেয়৷ এরপর দিবাগত রাতে তার বাহিনীর মালেক ড্রাইভার ও তার ছেলে ট্রাক দিয়ে আমার দোকানের শাটার গুড়িয়ে দেয় ও দোকানে ভাংচুর চালায়৷ এই হামলার নির্দেশদাতা আলাউদ্দিন। আমি প্রাণভয়ে আছি৷ আলাউদ্দিনের বাহিনী যেকোনো সময় আমাকে মেরে ফেলতে পারে।”

আইনের আশ্রয় নেওয়ার কথাও জানান ফজলুল হক। ওই সন্ত্রাসী হামলার ফলে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে৷

আলাউদ্দিন হাওলাদারের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, মাদক ব্যবসা, ভূমিদস্যুতা, জুয়ার বোর্ড পরিচালনাসহ অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে৷ নিজ কার্যালয়ে দুই যুবককে চোর আখ্যা দিয়ে নির্মমভাবে পিটিয়ে গত বছরের শেষের দিকে ব্যাপক সমালোচনার শিকার হন তিনি৷

ক্ষমতাসীন দলের এই নেতা এলাকায় বিশাল সন্ত্রাসী বাহিনী তৈরি করেছেন বলেও অভিযোগ আছে৷ এছাড়া তার ছেলে তপন ইয়াবা আসক্ত ও মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত৷ কিশোর গ্যাং পরিচালনায়ও তপনের নাম উঠে এসেছে একাধিকবার৷ সম্প্রতি স্থানীয় শাহীবাজার কবরস্থানে বেশ কিছু কবর তুলে দিয়ে মার্কেট নির্মাণ করতে গিয়ে আরেক দফা সমালোচনার মুখে পড়েন আলাউদ্দিন৷ তিনি ওই কবরস্থান কমিটির সভাপতি বলে জানা গেছে। ওই সময়ে স্থানীয় যুবলীগ নেতা আব্দুল খালেক আলাউদ্দিনকে “কুলাঙ্গার” বলেও অভিহিত করেন। তবে অসংখ্য অভিযোগের পরে আলাউদ্দিন এক অদৃশ্য হাতের ইশারায় বারবার পার পেয়ে যাচ্ছেন বলে মনে করেন অনেকেই।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 TV Site
Develper By ITSadik.Xyz