1. abir.sayeed@gmail.com : abir :
  2. xerosmac@gmail.com : Mohin Soy : Mohin Soy
  3. zakariashipon1993@gmail.com : Narayanganj Tribune : Narayanganj Tribune
  4. sifat.sikder13@gmail.com : Sifat Sikder : Sifat Sikder
May 12, 2021, 1:39 pm

চিহ্নিত সন্ত্রাসী বদু সুমন ও বদু সবুজ বাহিনীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ দেওভোগবাসী

Reporter Name
  • Update Time : Monday, April 19, 2021

নিজস্ব প্রতিবেদক: ফতুল্লার পশ্চিম দেওভোগের চিহ্নিত, মোস্ট ওয়ান্টেড সন্ত্রাসী সহোদর বদু সুমন ও সবুজের অপকর্ম যেন থামছেই না। একাধিক অস্ত্র, মাদক, ছিনতাই মামলার আসামী এই বাহিনীর কাছে জিম্মি এখন পশ্চিম দেওভোগসহ তাঁতিবাড়ি, নাগবাড়ি, বাঁশমলি, খিল মার্কেটসহ আশেপাশের এলাকার জনসাধারণ। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, কিশোর গ্যাং পরিচালনা, অস্ত্র, মাদক ব্যবসা, ভূমিদস্যুতা, দেহব্যবসাসহ হেন কোনো অপকর্ম নেই যা এই দুই সহোদর ও তাদের বাহিনী করছে না।

হত্যার ঘটনার সাথে তাদের জড়িত থাকার কথাও এলাকায় ওপেন সিক্রেট। এমনকি অটোরিক্সা চুরির সিন্ডিকেটও পরিচালনা করছে এই সন্ত্রাসী বাহিনী, অবৈধভাবে ইন্টারনেট ব্যবসা পরিচালনার অভিযোগও রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। একাধিক টর্চার সেল পরিচালনা ও বেশ কয়েকটি বাড়ি জবরদখলের তথ্যও পাওয়া গেছে এই সন্ত্রাসী বাহিনীর বিরুদ্ধে। একসময় এমব্রয়ডারির কাজ করলেও অস্ত্র, মাদক ব্যবসাসহ নানা অপকর্ম করে রাতারাতি অঢেল অর্থবিত্তের মালিক হয়েছেন তারা। জোরপূর্বক ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরীকে বিয়ে করেছেন সন্ত্রাসী সবুজ। দরিদ্র পরিবারের ওই মেয়ে তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হলেও নীরবে সয়ে যাচ্ছে বলে সূত্র জানায়।

সন্ত্রাসী সুমন ও সবুজের মা’ও ওই এলাকার মাদকের বড় ডিলার বলে জানিয়েছে একটি সূত্র। উল্লেখিত এলাকাগুলোতে তিনি মাদক সরবরাহ করেন বলে অভিযোগ রয়েছে। তাই এতসব অপকর্মের পরেও শাসন বা সম্পর্কচ্ছেদ তো নয়ই, বরং পরিবার থেকেই সহযোগিতা পাচ্ছে এই দুই চিহ্নিত সন্ত্রাসী৷ এই বাহিনীর প্রত্যেক সদস্যের বিরুদ্ধেই হত্যা, মাদক, অস্ত্র ব্যবসার দায়ে মামলা রয়েছে।

বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড ১ নং বাবুরাইলের শহীদ (৩৫), পিতাঃ খোকা, বহুল আলোচিত রকি হত্যা মামলার আসামী, বাঁশমলি এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী রাজু প্রধান (৩৭), পিতাঃ অজ্ঞাত, লিচুবাগের খান সুমন (৩৮), হোসাইনীনগরের ডাবল মার্ডারের আসামী যথাক্রমে যুবদল নেতা সিকদার বাপ্পী, রবিন,রকি, ওয়ান পিস ফয়সাল, আমান, সবুজের ভায়রা ঢাকাইয়া মামুন, ডেঙ্গু রাজন। সবুজের অবর্তমানে মাদক ও অস্ত্র ব্যবসা পরিচালনা করে বদু সুমন। এলাকায় নতুন কোনো বাড়ি-স্থাপনা নির্মাণ করতে গেলেও এই বাহিনীকে চাঁদা দিতে হয়। চাঁদার টাকা না দিলে গুলি করে পঙ্গু করে দেওয়ার মতো ঘটনা ঘটাতেও তারা দ্বিধা করে না।

এলাকাবাসী জানায়, এদের প্রত্যেকের হাতেই অবৈধ অস্ত্র রয়েছে। অত্যাধুনিক ওইসব অস্ত্র নিয়ে প্রায়ই এলাকায় মহড়া দিতে দেখা যায় তাদের। সূত্রমতে, এই বাহিনীর একাধিক সদস্য এর আগে গ্রেফতার হলেও তাদের অপকর্ম থামেনি। এমনকি র্যাবের নিকট অস্ত্রসহ গ্রেফতার হয়েও পরবর্তীতে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ অব্যাহত রেখেছে তারা। পত্রিকাগুলোতে তাদের অপকর্ম প্রকাশিত হলে পুরো বাহিনী কিছুদিন ভয়ে আত্মগোপনে থাকে। পরিস্থিতি কিছুটা অনুকূলে এলে আবারো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড শুরু করে।

এই বাহিনীর পরিচালনায় রয়েছে ভয়ঙ্কর কিশোর গ্যাংও। এর পরিচালনা করে ওয়ান পিস ফয়সাল (২৭) ও মিলন। সদস্যদের মধ্যে আছে খিল মার্কেটের মুন্না (২১), বাদশা (২০), পশ্চিম নগরের ডেবিড (২১), আব্দুল্লাহ (২২), কৃষ্ণা (২০)। এদের প্রত্যেকের হাতেই রয়েছে রিভলবার, চাপাতি, ছেন, রামদা, চাইনিজ কুড়াল৷ সহিংসতা, জখম, মাদক ও অস্ত্র ব্যবসা, মাদক সেবনে এই কিশোর গ্যাংকে ব্যবহার করে সন্ত্রাসী বদু সুমন ও সবুজ। চিহ্নিত এই সন্ত্রাসী বাহিনীর নিকট জিম্মি থাকলেও ভয়ে এলাকাবাসী মুখ খুলতে নারাজ। তারা চাইছেন, অবিলম্বে যেন চিহ্নিত এসব সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারপূর্বক আইনের আওতায় আনা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 TV Site
Develper By ITSadik.Xyz