নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ফতুল্লার পাগলায় ছিনতাইয়ের ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মাঝে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।সোমবার দুপুরের পর পাগলা নয়ামটি ভাবীর বাজার এলাকায়  দুই দফায় সংঘর্ষের ঘটনায় উভয় গ্রুপের দুইজন আহত বলে জানা যায়।আহতরা হলো তানভীর(২৫),দূর্জয়(১৮)।আহত তানভীর ও দূর্জয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

দুই দফায় উভয় গ্রুপের সন্ত্রাসীরা দেশীয় তৈরী ধারালো অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।এসময় পুরো ভাবীর বাজার এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পরে।দোকান পাট বন্ধ করে অনেকেই নিরাপদ স্থানে চলে যায়।পরে পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলেও ঘটনার সাথে জড়িত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।সংঘর্ষের ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থনায়  পৃথক পৃথক দুটি লিখিত অভিযোগ হয়েছে বলে জানা যায়।

 

জানা যায়,রোববার রাতে একদল ছিনতাইকারী  পাগলা থেকে একটি অটোরিক্সা ভাড়া নিয়ে নন্দলালপুরস্থ রেললাইন সংলগ্ন প্রাপ্তি সিটি হাউজিংয়ের সামনে গিয়ে ধারালো ছুরির ভয় দেখিয়ে এবং মারধর করে ইজিবাইক চালকের নিকট থেকে নগদ অর্থ সহ মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়।এ নিয়ে থানায় অভিযোগের পাশাপাশি সোমবার দুপুরে নয়ামটি ভাবীর বাজারে শালিসী হওয়ার কথা ছিলো।দুপুর একটার দিকে উভয় গ্রুপের লোকজন বসার প্রস্তুতি নিলে অভিযুক্ত  ছিনতাইকারী দলের সদস্যরা দেশীয় অস্ত্রে-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে শালিসীতে আগত ইজিবাইক চালকের পক্ষ নেয়া তানভীর,দূর্জয়ের উপর হামলা চালায়।এ সময় হামলাকারীরা কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে তানভীর ও দূর্জয় কে।স্থানীয় এলাকাবাসী তাদের কে উদ্বার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।

পরে বিকেলে উভয় গ্রুপের সদস্যরা দেশীয় অস্ত্র- সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় লিপ্ত হয়।এ সময় এলাকাবাসীর মাঝে আতংক ছড়িয়ে পরে।

 

 

ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুর রউফ জানায়,সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে তিনি সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।পরিস্থিতি বর্তমানে স্বাভাবিক রয়েছে।কি কারনে কেনো সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।মারামারির ঘটনায় থানায়  পাল্টাপাল্টি দুটি অভিযোগ হয়েছে বলে তিনি জানান।