1. abir.sayeed@gmail.com : abir :
  2. xerosmac@gmail.com : Mohin Soy : Mohin Soy
  3. zakariashipon1993@gmail.com : Narayanganj Tribune : Narayanganj Tribune
  4. sifat.sikder13@gmail.com : Sifat Sikder : Sifat Sikder
September 27, 2021, 7:27 am

মাদক ও কিশোর গ্যাংয়ে ডুবছে রসুলপুর, নেপথ্যে চারজন

Reporter Name
  • Update Time : Tuesday, July 27, 2021

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ লাগামহীন মাদক ও কিশোর গ্যাংয়ের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন কুতুবপুরের বৃহত্তর রসুলপুরের জনসাধারণ। মাদকের ভয়াল থাবায় বিপন্ন হয়ে পড়েছে জনজীবন। সেইসাথে কিশোর গ্যাংয়ের আধিক্য রসুলপুরকে ধীরে ধীরে বসবাসের অযোগ্য করে তুলেছে। এর নেপথ্যে উঠে এসেছে চিহ্নিত চার মাদক ব্যবসায়ী ও কিশোর গ্যাংয়ের হোতার নাম।

বিশ্বস্ত সূত্রমতে, কুতুবপুরে মাদক ও কিশোর গ্যাংয়ের মূল হোতা রবিন। মূলত রবিনের মাধ্যমেই রসুলপুরে মাদক ব্যবসা লাগামহীন হয়ে উঠেছে। কিশোর গ্যাংয়েরও মূল হোতা এই রবিন। সম্প্রতি রবিনের অপকর্ম নিয়ে একাধিক গণমাধ্যমে সংবাদ প্রচারিত হয়। ফলে কিছুটা ভড়কে গিয়ে রবিন এখন আরো কৌশল অবলম্বন করছেন। তার মাদক বিক্রির প্রধান স্পট এখন ওয়াসা সংলগ্ন নতুন রাস্তা। অভিযোগ রয়েছে, নানা সুযোগ সুবিধা গ্রহনের মাধ্যমে স্থানীয় কিছু বিতর্কিত ব্যক্তি রবিনকে শেল্টার দিচ্ছেন। রবিন নিজেকে যুবলীগ নেতা হিসেবে দাবি করলেও ওয়ার্ড পর্যায়েও তার কোনো পদ নেই বলে অনুসন্ধানে উঠে এসেছে।

সূত্র জান্য, রবিনের মাদকের সেলসম্যান হিসেবে আছেন রসুলপুরের চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী জলিল, সিজান ও আব্দুল খালেকের পুত্র রানা। এই তিনজনের মাধ্যমেই রবিন একাধিক স্পটে দেদ্রসে ইয়াবা, ফেনসিডিল, গাঁজা বিক্রি করে যাচ্ছে। এদের মধ্যে রবিনের নিকটাত্মীয় জলিল গাঁজা বিক্রি করে থাকে। জলিল নিজেও দীর্ঘদিন ধরে মাদকাসক্ত বলে জানা যায়। অন্যদিকে সিজান ও রানার মাধ্যমে রবিন ইয়াবা, ফেনসিডিলের একাধিক স্পট চালাচ্ছে বলে নির্ভরযোগ্য সূত্রে উঠে এসেছে।

জানা যায়, রবিনের নিয়ন্ত্রণে থাকা কিশোর গ্যাংও দেখভাল করে সিজান ও রানা। তাদের রয়েছে ৩০-৩৫ জনের একটি কিশোর বাহিনী। এদের প্রত্যেকের হাতেই রয়েছে ছেন, রামদা, চাপাতি, গিয়ারসহ অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র। সামান্য কিছুতেই এরা অস্ত্র সহকারে মহড়া দেয়, সংঘর্ষ ঘটায়। কিশোর গ্যাংয়ের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী প্রতিনিয়ত আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন। এলাকাবাসীর মতে, মাদক ও কিশোর গ্যাংয়ের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে অনেকেই অন্যত্র বসবাস শুরু করেছেন। ছিনতাই, মাদক ব্যবসা, ইভটিজিং, চুরিতে এলাকার পরিবেশ ক্রমাগত নষ্ট হচ্ছে। মাদক ও কিশোর গ্যাংয়ের এসব হোতাদের অবিলম্বে আইনের আওতায় আনার দাবি এলাকাবাসীর।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 TV Site
Develper By ITSadik.Xyz